মানবিক কর্মকাণ্ডে আমি গর্ববোধ করি: ওসি আবদুল জলিল
রায়পুরে ভিক্ষুকের প্রতি মানবিকতার হাত বাড়িয়ে দিলেন ওসি জলিল

জহিরুল ইসলাম টিটু:

লক্ষ্মীপুরের রায়পুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবদুল জলিল মানবিক সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন ভিক্ষুকের প্রতি।

গতকাল সোমবার (৩রা মে) আনুমানিক বিকেল ৫ঘটিকার সময় আশি উর্ধ্ব একজন ভিক্ষুক আমেনা (ছদ্মনাম) থানায় প্রবেশ করেন।
এসময় থানায় দায়িত্বরত সিপাহী তাঁকে গতিরোধ করে।

বিষয়টি তাৎক্ষণিক সিসি টিভির মাধ্যমে নজরে আসে ওসি আবদুল জলিলের। তখন তিনি নিজেই ছুটে যান সেই ভিক্ষুক মহিলার নিকট এবং তাঁকে ডেকে নিয়ে বসান ওসি’র অফিস কক্ষে। কুশলাদি বিনিময়ের একপর্যায়ে জানতে পারেন যে, মহিলা অসুস্থ তাঁর নিকট ঔষধ কেনার টাকা নেই! তখন ওসি আবদুল জলিল নিজের পকেট থেকে ১হাজার টাকা দিয়ে ঔষধ কিনতে বলেন এবং পরবর্তীতে যেকোন সমস্যার যেন তাঁর (ওসি’র) সাথে যোগাযোগ করেন।
তখনই অনেকটা আবেগাপ্লুত হয়ে কান্না জড়িত কন্ঠে বৃদ্ধা ভিখারী দু’হাত তুলে মহান আল্লাহর দরবারে ওসি আবদুল জলিলের জন্য আন্তরিকভাবে দোয়া করে বিদায় নেন।

বিষয়টি নিয়ে রায়পুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবদুল জলিল মুখ খুলতে না চাইলেও তাঁর কথার একপর্যায়ে জানা যায়, এর আগেও প্রায়ই তিনি এই ভিক্ষুক মহিলার প্রতি মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে আত্ম-মানবতার সেবায় সাহায্যের হাত বাড়িয়ে ছিলেন এবং তারই ধারাবাহিকতায় এই বৃদ্ধা আজও থানায় এসে ওসিকে তালাশ করছিলেন।

বিষয়টি ওসি প্রকাশ করতে চাননি তবুও রায়পুর রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি পীরজাদা মাসুদ হোসাইন এর সামনাসামনি হওয়াতে বিষয়টি ভেসে উঠে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। খবর নিয়ে জানা যায়, রায়পুর থানার এই অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শুধু আশি উর্ধ্ব এই আমেনাকেই (ছদ্মনাম) নয়। এভাবে প্রায় ১০-১৫জন ভিখারীর প্রতি প্রায়ই সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন।
‘বেঁচে থাকুক মানবতা’

নিউজটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *