জণগণের সুখ দুঃখের সাথী ছিলেন কাজী পাপুল এমপি
এমপি পাপুলের ফেরার প্রতীক্ষায় রায়পুর-লক্ষ্মীপুরবাসী

নিজস্ব প্রতিবেদক:

এমপি পাপুলের ফেরার অপেক্ষায় রায়পুর-লক্ষ্মীপুরবাসী
দীর্ঘ সময় এলাকা থেকে দূরে প্রবাসে থাকা এমপি পাপুলের ফেরার অপেক্ষায় এখনো দিন গুণছে লক্ষ্মীপুর-রায়পুরের মানুষ।

সম্প্রতি তিনি, দেশি বিদেশি কুচক্রী মহলের ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে কুয়েতের কারাগারে বন্দি হয়েছেন।এরপর থেকেই তাঁর ফেরার বিষয়ে গুঞ্জন শুরু হয়েছে এলাকাবাসীর মধ্যে।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রথমত স্বতন্ত্র প্রার্থী হলেও পরবর্তীতে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়ে বিপুল ভোটে ২৭৫, লক্ষ্মীপুর-২ (আংশিক সদর) রায়পুর আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন কাজী মোহাম্মদ শহিদ ইসলাম পাপুল।

তিনি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার আগেও মায়ের নামে একটি দাতব্য হাসপাতাল উদ্বোধন করেন তার বাড়ির দরজায়। এছাড়াও রায়পুর-লক্ষ্মীপুরের বিভিন্ন সামাজিক কার্যকলাপ সহ সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন অসহায় পরিবারের প্রতি। তখন তিনি বলেছিলেন, এই মুহূর্তে রাজনীতি নয়, মানুষের উন্নয়নেই কাজ করতে চান তিনি।

সম্প্রতি এমপি নির্বাচিত হওয়ার পরও তাঁর এই সামাজিক কার্যকলাপে প্রতিহিংসার শিকার হন তিনি। তাঁর প্রতিষ্ঠিত (কুয়েতে) মারাফি কুয়েতিয়া নামক একটি কোম্পানিতে হাজার হাজার বেকার বাংলাদেশীদের চাকুরির ব্যবস্থাও করেন তিনি। আর এতেই চোখের কাঁটা হয়েছেন অনেকের। আল্লাহ চাইলে সহসাই সবকিছুর সমাধান করে দেশে ফিরবেন তিনি। এমনটাই আশা করছেন এলাকার সবাই।

স্থানীয় গন্যমান্য রাজনৈতিক ও সুশীল সমাজের নেতারাও বলছেন, এমপি পাপুল এলাকায় ফিরলে তাদের জন্য অনেক বড় পাওয়া হবে।

রায়পুর-লক্ষ্মীপুরবাসী অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন, কবে নাগাদ দেশে ফিরছেন তাদের এই প্রাণপ্রিয় এই নেতা তা দেখার জন্য।

উল্লেখ্য, এমপি পাপুল ও তাঁর পরিবার বরাবরই রায়পুর-লক্ষ্মীপুরের সাধারণ মানুষদের ভাগ্যেয়ন্নয়ের জন্য নিরলসভাবে কাজ আসছিলেন।বন্যা, মহামারি করোনা মোকাবেলায় সবসময় রায়পুর-লক্ষ্মীপুরের দুর্গম চরাঞ্চলের অসহায় পরিবারগুলোর পাশে দাঁড়িয়েছিলেন সাহায্য নিয়ে। যেকোন ধর্মীয় উৎসবেও আনন্দ ভাগাভাগি করতে মুসলমানদের দু’টি ঈদ ও সনাতন ধর্মাবলম্বীদের শারদীয় উৎসবে শাড়ি, লুঙ্গি, নগদ অর্থসহ প্রয়োজনীয় সকল সরঞ্জাম উপহার দিয়ে আসছেন। তাই, লক্ষ্মীপুর-২ (আংশিক সদর) রায়পুর আসনের সাধারণ জণগণ কোনভাবেই এমপি পাপুলের না থাকার ব্যাথা ভুলতে পারছেন না।

নিউজটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *